মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২০ জুন ২০১৭

হালাল পন্য রপ্তানীর মাধ্যমে বাংলাদেশের বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের সুযোগ রয়েছে - বলেছেন শিল্পমন্ত্রী আমীর হোসেন আমু


প্রকাশন তারিখ : 2017-06-19

ঢাকা, ১৮ জুন ২০১৭, রবিবার ॥
শিল্পমন্ত্রী আমীর হোসেন আমু বলেছেন, হালাল পন্য রপ্তানীর মাধ্যমে বাংলাদেশের বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের সুযোগ রয়েছে। শুধু অভ্যন্তরীন চাহিদা পূরণ নয়, হালাল খাদ্য ও পর্যটন শিল্পের বিকাশ ঘটিয়ে আমরা আন্তর্জাতিক বাজারে এ দেশীয় পন্যের বিকাশ ঘটাতে পারি। আজ (১৮ জুন, রবিবার) বিকালে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মুকাররম মিলনায়তনে হালাল পণ্যের মেলা ‘বাংলাদেশ হালাল এক্সপো-২০১৭’ সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। হালাল পন্যের শিল্প বিকাশে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের  উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এ সৃজনশীল উদ্যোগের ফলে বিশ্ববাজারে সম্ভাবনাময় এ হালাল খাতের অবস্থান আরো সুসংহত হবে এবং এ খাতে রপ্তানী আয় বৃদ্ধির সুযোগ সৃষ্টি হবে।

সভাপতির বক্তব্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল বলেন, হালাল সনদ প্রদানের জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশন সরকার কর্তৃক অনুমোদিত একমাত্র প্রতিষ্ঠান। এ আয়োজনের ফলে হালাল পন্য বাজারজাতকরণে দেশের বিভিন্ন ভোগ্যপণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান আরো ব্যাপকভাবে হালাল সনদ গ্রহণে উদ্যোগী হবেন। স্বাগত বক্তব্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সচিব কাজী নুরুল ইসলাম বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন আয়োজিত মেলার মাধ্যমে হালাল পন্য সম্পর্কে আরো বেশি করে জনসচেতনতা সৃষ্টি হবে এবং ভোগ্যপন্যের বাজার সম্প্রসারণ হবে। অনুষ্ঠানে হালাল পণ্যের উপর একটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাবেক পরিচালক আবু হেনা মোস্তফা কামাল।  
 
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন বিভাগের পরিচালক, উপপরিচালক ও কর্মকর্তা কর্মচারিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের দক্ষিন সাহানে (উন্মুক্ত অংশ)  তিন দিন ব্যাপী আয়োজিত মেলার আজ ছিল শেষ দিন। মেলায় ইফাদ মাল্টি প্রোডাক্টস লিমিটেড, এজি এগ্রো ফুডস্ লিমিটেড, হামদর্দ ল্যাবরেটরীজ (ওয়াক্ফ) বাংলাদেশ, নেসলে বাংলাদেশ, প্রান ফুডস লিমিটেড, ইফাদ মাল্টি প্রোডাক্টস লিমিটেড, স্কয়ার ফুড এন্ড বেভারেজ লিমিটেডসহ  প্রায় ১৬ টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে।


Share with :
Facebook Facebook